Daikin 1.5-টন ইনভার্টার এসির সাথে সাশ্রয়!

সম্প্রতি জলবায়ু, বিশেষ করে গরমকালের জলবায়ু কীভাবে আমূল পরিবর্তিত হচ্ছে তা আমরা দেখছি। গরমে পারদ যেভাবে চড়ছে তাতে এয়ার কন্ডিশনারের মতো একটি বিলাসিতার ডিভাইস আমাদের কাছে প্রয়োজনীয়তা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তবে, বাংলাদেশে ইনভার্টার সিরিজের এয়ার কন্ডিশনিং ইউনিট কেনার সিদ্ধান্ত নিতে কিছু ব্যবহারকারী এখনও গররাজী হন।

এককালীন টাকা দিয়ে এয়ার কন্ডিশনার কেনার পরে বছরে কত টাকার বিলের ধাক্কা লাগবে এই ভেবেই মানুষজন উদ্বিগ্ন হন। এবার আর সেই চিন্তা নেই, কারণ প্রযুক্তির উদ্ভাবন আপনার দ্বিধা কাটানোর সমাধান নিয়ে এসেছে। বাংলাদেশে ইনভার্টার সিরিজের এসির দাম আপনাকে বিদ্যুতের বিলে টাকা বাঁচাতে সাহায্য করবে। Daikin 1.5-টন ইনভার্টার এসি কিনলে আপনি কীভাবে সাশ্রয় করতে পারবেন তা এখানে দেখানো হল

  • ইনভার্টার প্রযুক্তি থাকা এয়ার কন্ডিশনিং সিস্টেম কম্প্রেসরের বেগ নিরীক্ষণ করতে পারে এবং ঘরের তাপমাত্রা ধারাবাহিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে থাকে, যাতে 30-50 শতাংশ বিদ্যুৎ খরচ বেঁচে যায়।
  • কোনও নন-ইনভার্টার এয়ার কন্ডিশনারের ক্ষেত্রে কম্প্রেসরটি হয় "চালু" বা "বন্ধ" থাকে। কম্প্রেসর চালু করা হলে এটি সর্বাধিক ক্ষমতায় চলতে থাকে এবং যা বিদ্যুৎ উপলভ্য আছে তার সবটুকুই ব্যবহার করে।
  • থার্মোস্ট্যাট যখন এয়ার কন্ডিশনারে সেট করা তাপমাত্রায় পৌঁছে যায়, তখন কম্প্রেসর বন্ধ হয়ে যায় কিন্তু ফ্যান চলতে থাকে। অন্য দিকে, ইনভার্টার এয়ার কন্ডিশনারের কম্প্রেসর সবসময় চালু থাকে এবং সেটির বেগ ও পাওয়ার যথাযথভাবে পরিবর্তিত হয়।
  • ঘরের চাহিদা অনুসারে কম্প্রেসরটি অটোমেটিক পাওয়ার পরিবর্তন করে।

ফলে, ইনভার্টার এয়ার কন্ডিশনার কম বিদ্যুৎ ব্যবহার করে এবং আপনার পয়সাও বাঁচে। কাজেই ইনভার্টার এয়ার কন্ডিশনারে বিনিয়োগ করুন এবং এয়ার কন্ডিশনিং ইউনিট বন্ধ করার ব্যাপারে আর মাথা ঘামাতে হবে না জেনে স্বস্তির শ্বাস নিন।

Daikin প্রিমিয়াম ইনভার্টার স্প্লিট এয়ার কন্ডিশনার& JTKJ18TV16UD 1.5 টন কোয়ান্ডা এয়ারফ্লো এবং ইকোনো মোড সমেত আপনার সাশ্রয়ের সঙ্গী হতে পারে।

Share

Add new comment